আমাদের ব্লগ

মহাবিশ্বের উৎপত্তি আইজিএআরসি
আসসালামু আলাইকুম, স্বাগত জানাচ্ছি @IGSRC এর আজকের পর্বে। আমরা আজকে মহাবিশ্ব সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করার চেষ্টা করবো।
মহাবিশ্বের উৎপত্তি সম্পর্কে পবিত্র কুরআন শরীফে বর্ণিত রয়েছে-
اَنَّ السَّمَاوَاتِ وَالْاَرْ‌ضَ كَانَتَا رَ‌تْقًا فَفَتَقْنَاهُمَا ۖ وَجَعَلْنَا مِنَ الْمَاءِ كُلَّ شَيْءٍ حَيٍّ ۖ
অর্থ : “নিশ্চয়ই আকাশ ও পৃথিবী এক সাথে মিশে ছিল, তারপর আমি তাদেরকে আলাদা করলাম এবং পানি থেকে সৃষ্টি করলাম প্রত্যেকটি প্রাণীকে।” (সূরা আম্বিয়া- ৩০)
মহান আল্লাহ পাক তিনি অন্যত্র বলেন –
يَوْمَ نَطْوِي السَّمَاءَ كَطَيِّ السِّجِلِّ لِلْكُتُبِ ۚ كَمَا بَدَأْنَا أَوَّلَ خَلْقٍ نُّعِيدُهُ ۚ
অর্থ : “সেদিন আমি এমনভাবে গুটিয়ে ফেলবো আকাশকে যেমন গুটানো হয় লিখিত কাগজপত্র, যেভাবে আমি প্রথমে সৃষ্টির সূচনা করেছিলাম ঠিক তেমনিভাবে আবার তার পুনরাবৃত্তি করবো।” (সূরা আম্বিয়া- ১০৪)
উপরোক্ত আয়াত শরীফের ব্যাখ্যায় মহাবিশ্বের উৎপত্তি সম্পর্কে হযরত ইমাম জাফর ছদিক্ব তিনি বলেন-
“এই মহাবিশ্ব একটি ক্ষুদ্র কণা থেকে সৃষ্টি হয়েছে, যার দুইটি বিপরীতমুখী মেরু ছিল। এই কণা থেকেই পরমাণু সৃষ্টি হয় এবং এভাবেই বস্তু সৃষ্টি হয়েছে। এরপর এই বস্তুটি অনেক ভাগে বিভক্ত হয়। এই বিভক্তি সংঘটিত হয়েছে পরমাণুগুলোর ঘণত্ব অথবা বিরলতার কারণে।”
মহাবিশ্বের সংকোচন-প্রসারণ : মহাবিশ্ব সম্পর্কে হযরত ইমাম জাফর ছদিক্ব উনার আরেকটি উল্লেখযোগ্য তত্ত্ব হচ্ছে–
“মহাবিশ্ব কখনোই একই অবস্থায় নেই। একসময় এটি প্রসারিত হয় এবং একসময় হয় সংকুচিত।”
সময় পেলে মহাবিশ্ব সম্পর্কে আরো আলোচনা করা হবে, ইন-শা-আল্লাহ।
May be an image of text that says "মহাবিশ্বের উৎপত্তি"